স্মৃতিচারণ ১ : 

স্মৃতিচারণ ১ :
তখন আমার বয়স ৪ এর কাছাকাছি । প্রায় প্রতিদিন মাগরিবে মসজিদে নামাজে যেতাম । যদিও আমি একটু হাঁটা শিখার পর থেকেই আব্বু প্রতি নামাজে মসজিদে নিয়ে যেতেন শুনেছি । তখন আমি নামাজ পড়তাম না । পিছনে বসে নামাজ পড়া দেখতাম ।

আমাদের মসজিদে তখনো বিদ্যুৎ ছিল না । মসজিদের মাঝখানে একটা বড় পাখা ছিল যেটা বাশের সাথে বেধে রাখা ছিল – একটা দড়ি দিয়ে টানতে হতো । যখন অন্যপাশ ঘুড়ে এই পাশে পাখা আসত অনেক বাতাস হত । নামাজ শেষে আব্বু বন্ধুদের সাথে গল্প করতেন আমি সহ । ছোট ছিলাম বলে সবাই খুব স্নেহ করতেন। আমার খুব মন চাইত ঐ দড়ি ধরে আমি সবাইকে বাতাস করব ।কিন্তু সুযোগ পেতাম না । একদিন আব্বু খানিকটা ক্লান্ত হয়ে গেলে দড়ি টানা বদ্ধ রাখলেন । আমি দড়ি টানার জন্য দড়িতে হাত দিলাম । সবাই হেসে উঠল । আব্বু তখন বললেন ও তুমি সবাইকে বাতাস করবে ? আমি মাথা নাড়ালাম ।

আমি দড়ি ধরে কয়েকবার টান দিয়ে ক্লান্ত হয়ে গেলাম । খুব অল্পই বাতাস হল । কিন্তু সবাই অনেক বেশি খুশি হল ।